মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ০৫:২৪ অপরাহ্ন

‘যৌতুক প্রচারের’ জন্য অক্ষয় কুমার বিজ্ঞাপনের নিন্দা

ফোরাম প্রতিবেদক / ২২০ জন দেখেছেন
আপডেট : সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২২
'যৌতুক প্রচারের' জন্য অক্ষয় কুমার বিজ্ঞাপনের নিন্দা
দর্শক ফোরামের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন

সময়টা বেশ খারাপ যাচ্ছে অক্ষয়ের। কিছুদিন আগে পান মশলার বিজ্ঞাপনে অংশ নিয়ে বিপাকে পড়েছিলেন অভিনেতা। এবার নতুন আরেক বিজ্ঞাপনের কারণে সমালোচিত হলেন তিনি। তার বিরুদ্ধে যৌতুক প্রথার প্রচার চালানোর অভিযোগ উঠেছে এবার।

ভারতে দুর্ঘটনার সংখ্যা বাড়ছে। সচেতনতা বাড়াতে সম্প্রতি সরকারের তরফ থেকে একাধিক বিজ্ঞাপন তৈরি করা হয়েছে। সেগুলোর একটিই বিতর্কের শিকার হলো।

অবশেষে মুক্তি পেলো ‘বিউটি সার্কাস’র ট্রেইলার (ভিডিও)

অক্ষয়ের বিজ্ঞাপনে দেখা গেছে, একজন পিতা তার কন্যাকে বিয়ের পর বিদায় জানাচ্ছেন। তার মেয়ে গাড়িতে উঠে কান্নায় ভেঙে পড়েছেন। এমন সময় অক্ষয় কুমার পুলিশ বেশে মেয়েটির বাবার কাছে এসে বলেন এমন গাড়িতে বিদায় জানালে মেয়ে তো কাঁদবেই। উত্তরে সেই পিতা অক্ষয়কে বলেন এই গাড়িতে কিছুরই ঘাটতি নেই। ৬ টা স্পিকার, ইলেকট্রিক সান রুফ এবং অটোমেটিক সিস্টেম সবকিছুই আছে। তখন অক্ষয় কুমার বলেন, কিন্তু এয়ার ব্যাগ মাত্র ২টা, ৬টা নেই কেন? দুর্ঘটনা হলে সামনের এয়ার ব্যাগ খুললেও পেছনে বসে থাকা আপনার মেয়ে ও জামাই স্পিকারে গান শুনতে শুনতে টাটা বাই বাই হয়ে যাবে।

এই বিজ্ঞাপন টুইটারে শেয়ার করে সমালোচনার শিকার হয়েছেন কেন্দ্রীয় পরিবহন মন্ত্রী নীতিন গড়করিও। নেটিজেনদের মতে, সরকারি ভাবেই যৌতুক প্রথার প্রচারণা চালানো হচ্ছে। তাদের কথায়, ‘বিষয়টি কি অন্য ভাবে বোঝানো যেত না?’

আমি তো বিয়ের দিনই গর্ভবতী হতে চাই: রাখি

নেট দুনিয়ায় একজন লিখেছেন: “শুধুমাত্র ভারতে সরকার একটি দণ্ডনীয় অপরাধ, যৌতুককে প্রচার করে একটি বিজ্ঞাপন প্রচার তৈরি করতে করদাতার অর্থ ব্যয় করবে।”

এর আগে গডকরি ধন্যবাদ জানান অক্ষয় কুমার দেশব্যাপী ন্যাশনাল রোড সেফটি ক্যাম্পেইনের প্রতি তার সমর্থনের জন্য, “সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ক সচেতনতা ছড়িয়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে তার প্রচেষ্টা সত্যিই প্রশংসনীয়।”

তিনি টুইটারে লিখেছেন: “আমরা সচেতনতা এবং জনগণের অংশগ্রহণে ভারতে সড়ক দুর্ঘটনা কমাতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।”

রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গডকরি চলতি অর্থবছরের শেষ নাগাদ সব গাড়ির ছয়টি এয়ারব্যাগ রাখার নিয়ম চূড়ান্ত করার আশা করছেন।

সম্প্রতি টাটা কোম্পানির প্রাক্তন চেয়ারম্যান সাইরাস মিস্ত্রি গাড়ি দুর্ঘটনায় মারা যাওয়ার পর ভারতের কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণ মন্ত্রী নীতিন গড়করি ৬ টি এয়ারব্যাগযুক্ত গাড়ি ব্যবহারের ওপর জোর দিয়েছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

এ বিভাগের আরো খবর

২১ জুন-23 অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান