ভারত-বাংলাদেশ ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড প্রদান ২১ অক্টোবর

ফোরাম প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : শনিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৯
  • ১৮৪ জন দেখেছেন


ভারত-বাংলাদেশের চলচ্চিত্র নিয়ে ২১ অক্টোবর ঢাকার বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে দেয়া হবে ভারত-বাংলাদেশ ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড। বাংলাদেশ ও কলকাতার সেরা বাংলা ছবি, অভিনেতা-অভিনেত্রীসহ ১৭টি শাখায় দেওয়া হবে এই অ্যাওয়ার্ড। অনুষ্ঠানে দুই বাংলার শীর্ষ বহু তারকা উপস্থিত থাকবেন। শুক্রবার (১৮ অক্টোবর) কলকাতার একটি পাঁচতারকা হোটেলে ওই পুরস্কারের লোগো উন্মোচন এবং ঐ আয়োজনের চূড়ান্ত সূচি প্রকাশ করা হয় করা হয়।

ফিল্ম ফেডারেশন অব ইন্ডিয়ার আয়োজনে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘ভারত বাংলাদেশ ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড’। আগামী সোমবার বসুন্ধরার ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটির নবরাত্রী হলে দুই বাংলার তারকা সমন্বয়ে অনুষ্ঠিত হবে।

অনুষ্ঠানে আজীবন সম্মাননার পুরস্কার তুলে দেয়া হবে বাংলাদেশের গুণী অভিনেত্রী আনোয়ারা বেগম ও পশ্চিমবঙ্গের দর্শকপ্রিয় অভিনেতা রঞ্জিত মল্লিককে।

এই অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে ফিল্ম ফেডারেশন অব ইন্ডিয়া। পপুলার, টেকনিক্যাল ও রিজিওনাল-এই তিনটি ক্যাটাগরিতে মোট ২৪টি বিভাগে অ্যাওয়ার্ড দেয়া হবে। এসব বিভাগের মধ্যে রয়েছে- সেরা ছবি, সেরা নির্মাতা, অভিনেতা, অভিনেত্রী, পার্শ্ব অভিনেতা-অভিনেত্রী, সেরা গান, সেরা কণ্ঠশিল্পী নারী-পুরুষ, পপুলার ফিল্ম ইন দ্য ইয়ার, পপুলার অ্যক্টর অ্যান্ড অ্যক্ট্রেস অব দ্য ইয়ার, লাইভ টাইম অ্যচিভমেন্ট, সেরা কাহিনী, চিত্রগ্রাহক, সেরা সম্পাদক ইত্যাদি।

ভারত থেকে জুরি সদস্যদের মধ্যে রয়েছেন পরিচালক গৌতম ঘোষ, অভিনেতা-নির্মাতা ব্রাত্য বসু, সাংবাদিক ও সমালোচক গৌতম ভট্টাচার্য, প্রযোজক অঞ্জন বোস এবং অভিনেত্রী তনুশ্রী চক্রবর্তী। অন্যদিকে বাংলাদেশ থেকে জুরি হিসেবে আছেন অভিনেতা আলমগীর, অভিনেত্রী কবরী, ঔপন্যাসিক ও দৈনিক কালের কণ্ঠ পত্রিকার সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন, প্রযোজক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম খসরু এবং পরিচালক হাসিবুর রেজা কল্লোল।

ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য প্রথমবারের ভারত-বাংলাদেশ ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড-এ দুই দেশের মোট ১০টি ছবিকে চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় মনোনীত করা হয়েছে। বাংলাদেশের দিক থেকে পাঠশালা, দহন, সুপার হিরো, দেবী, নোলক এবং পশ্চিমবঙ্গের দিকের এক যে ছিল রাজা, নগর কীর্তন, সোনার পাহাড়, ব্যোমকেশ গোত্র প্রতিযোগিতায় স্থান পেয়েছে।

শেয়ার করুন

এ বিভাগের অন্যান্য খবর